০১:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচারণার মাঠে ছুটছেন প্রার্থীর স্ত্রীও

দিন যতো এগোচ্ছে ততোই প্রথম দফা নির্বাচনের প্রচারণার মাঠ জমজমাট হয়ে ‍উঠছে। তাপদাহ উপেক্ষা করে প্রার্থীর সঙ্গে নির্বাচনের মাঠে ভোট চাইতে পরিবারের লোকজনসহ স্বজনরাও নেমে গেছেন পুরোদমে।

বিশেষ করে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে অনেক প্রার্থীর স্ত্রী (সহধর্মিনী) নারী ভোটের ওপর জোর দিয়ে প্রচারণার কাজটি করে যাচ্ছেন। আবার কোনো কোনো প্রার্থীর ভাই-বোন সন্তানরাও মাঠে নেমেছেন ভোট চাইতে।

ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাচনে ভোটের বাকি আর তিনদিন। এরইমধ্যে ক্ষমতা দেখাতে গিয়ে প্রতিপক্ষকে কোণঠাসা করতে হামলা, সংঘর্ষ ও মারামারির ঘটনা কিছুটা উত্তাপও ছড়িয়েছে বরিশালজুড়ে।

তবে নির্বাচন কমিশনের অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপক্ষে নির্বাচনের ঘোষণায় শেষ সময়ে এসে সব প্রার্থীই জোর দিয়েছেন প্রচারণায়। তাই প্রার্থীর পাশাপাশি তাদের স্বজনরাও ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটে বেড়াচ্ছেন।

 

 

বর্তমানে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী এস এম জাকির হোসেনের পক্ষে তার স্ত্রী ফাতেমা জাকির ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে তালা প্রতীকের মো. জসিম উদ্দিনের স্ত্রী মারিয়া জসিম সবচেয়ে বেশি তৎপর প্রচারণার মাঠে। এরমধ্যে ফাতেমা জাকির শুরু থেকেই স্বামীর জন্য উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ প্রায় প্রতিটি স্থান চষে বেড়াচ্ছেন। ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন এবং স্বামীর জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন। অপরদিকে জসিমের স্ত্রী স্বতস্ফুর্তভাবে স্বামীর জন্য ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট চাইছেন।

আবার তাদের মতো করে প্রচারণার মাঠে রয়েছেন আনারস প্রতীকের প্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুনের স্ত্রী লাইজু খানসহ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের স্বজনরাও।

বরিশাল সদর উপজেলার চাঁদপুরা ইউনিয়নের বাসিন্দা ষাটোর্ধ্ব কামাল হোসেন বলেন, দলীয় প্রতীক না থাকায় এবারে ভোটারদের কদর মনে হয় বেড়েছে। সব প্রার্থীই প্রায় প্রতিদিন ইউনিয়নে আসছেন, ভোট চাচ্ছেন। সবাই সম্মান দেওয়ার চেষ্টা করছেন, আগামীর সুন্দর ভবিষ্যতের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। তবে প্রার্থীদের চেয়ে তাদের স্ত্রীরা বেশি কাজ করছেন বলে মনে হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমাদের ইউনিয়নের জাকিরের স্ত্রী ফাতেমা তো ব্যপক গণসংযোগ করছেন। এমন কোনো বাড়ি নাই যেখানে তিনি যাননি। এতে তার কারণে হলেও প্রার্থীর ওপর আমার দুর্বলতা সৃষ্টি হয়েছে।

রায়পাশা–কড়াপুর এলাকার ভোটার সোনিয়া বলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির ভাই ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম ভাইয়ের স্ত্রীর সঙ্গে দেখা হইছে। তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে খুব সুন্দরভাবে ভোট চাচ্ছেন। লিফলেট বিতরণ করে ভোট চাওয়ার নামে দাবড়ায়ে বেড়াচ্ছে না। সুষ্ঠু ভোট হলে এসব জিনিস বিবেচনা করেই ভোট দিতে যাব।

আর ব্যক্তি হিসেবে এস এম জাকির হোসেন সৎ, চরিত্রবান ও দায়িত্ব-কর্তব্য পরায়ণ দেখেই নিজ উদ্যোগে ভোট চাইতে নেমেছেন বলে জানিয়েছেন ফাতেমা জাকির।

এদিকে অনুমতি থাকায় এবারের নির্বাচনে রঙিন পোস্টারসহ ব্যানারের দেখা মিলছে সবখানে। সেইসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও দেখা মিলছে প্রার্থীদের বিভিন্ন বার্তা। এছাড়া সরেজমিনেও প্রার্থীরা বরিশালের উন্নয়নে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছেন।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলার সিনিয়র নির্বাচন অফিসার ওয়াহিদুল ইসলাম মুন্সি জানান, আগামী ৮ মে বরিশাল সদর ও বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সব প্রস্তুতি শেষের পথে। আর নির্বাচনী পরিবেশ বজায় রাখতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে।

উল্লেখ্য, বরিশাল সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে এস এম জাকির হোসেনের প্রতীক মোটরসাইকেল, মাহমুদুল হক খান মামুনের প্রতীক আনারস, মো. মনিরুল ইসলামের প্রতীক দোয়াত কলম, মো. মাহাবুবুর রহমান মধুর প্রতীক ঘেড়া ও মো. আব্দুল মালেকের প্রতীক কাপ পিরিচ।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো. জসিম উদ্দিন, শহিদ মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ, মো. হাদিস মীর ও মো. মাহিদুর রহমান (মাহাদ) ভোটযুদ্ধে রয়েছেন। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নেহার বেগম, মারিয়া আক্তার ও মোসাম্মৎ হালিমা বেগম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অপরদিকে বাকেরগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিশ্বাস মুতিউর রহমান (বাদশা)- আনারস, রাজিব আহম্মদ তালুকদার- কাপ পিরিচ, মো. কামরুল ইসলাম খান- মোটরসাইকেল, মো. ফিরোজ আলম খান- দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে ভোটযুদ্ধে রয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্থানীয় সাংসদের ভাই আবদুস সালাম- উড়োজাহাজ, মো. সাইফুর রহমান- তালা, মো. শাহবাজ মিঞা- বই প্রতীক নিয়ে ভোটযুদ্ধে রয়েছেন। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তহমিনা বেগম- হাঁস ও জাহানারা বেগম- কলস প্রতীক নিয়ে ভোটযুদ্ধে রয়েছেন।

ট্যাগস :

Add

আপলোডকারীর তথ্য

Barisal Sangbad

বরিশাল সংবাদের বার্তা কক্ষে আপনাকে স্বাগতম।
জনপ্রিয় সংবাদ