০৯:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরিশালে সংরক্ষিত আসনের লড়াইয়ে তৎপর দেড় ডজন নেত্রী

জাতীয় নির্বাচনের পর এবার শুরু হয়েছে সংরক্ষিত আসনে মহিলা সংসদ-সদস্য (এমপি) হওয়ার লড়াই। বরিশালের ৬ জেলায় দেড় ডজনের বেশি মহিলা নেত্রী আছেন এ লড়াইয়ে। তাদের সিংহভাগই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের। এছাড়া জাতীয় পার্টি ও ওয়ার্কার্স পার্টির আছেন দুজন। সংসদে যাওয়ার লড়াইয়ে থাকা এ নারী নেত্রীদের মধ্যে পাঁচজন একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য ছিলেন। অন্যদের বড় একটি অংশ ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে হেরে যাওয়া আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ-সদস্যদের স্ত্রী। ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের পত্নী লুৎফুন্নেসা খানও আছেন এই দৌড়ে। আরও আছেন ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে হেরে যাওয়া বরিশাল-৬ আসনের সদ্য সাবেক সংসদ-সদস্য নাসরিন জাহান রত্না আমিন। জাতীয় পার্টির নেত্রী রত্না দলের সাবেক মহাসচিব পটুয়াখালী-১ আসনের সদ্য নির্বাচিত সংসদ-সদস্য রুহুল আমিন হাওলাদারের স্ত্রী। তাদের পাশাপাশি সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংসদ-সদস্য হওয়ার তদবিরে বেগম তাসমিমা হোসেনও রয়েছেন বলে শোনা গেছে। তাসমিমা জেপি (মঞ্জু) চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর স্ত্রী। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিন মহারাজের কাছে হেরেছেন তিনি। এছাড়া বরিশালের মেয়র খোকন সেরনিয়াবাতের স্ত্রী লুনা আব্দুল্লাহর নামও রয়েছে এ তালিকায়।

বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় মোট সংসদীয় আসন ২১টি। একাদশ জাতীয় সংসদে এ এলাকার পাঁচ নেত্রী ছিলেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য। তারা সবাই অবশ্য বরিশালের কোঠায় ছিলেন না। বাড়ি বরিশালে; কিন্তু সংসদ-সদস্য হয়েছেন অন্য এলাকার-এমনও ছিলেন কয়েকজন। এ পাঁচ সংসদ-সদস্যের মধ্যে সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী রুবিনা আক্তার মীরা নৌকার মনোনয়ন চেয়েছিলেন বরিশাল-২ (বানারীপাড়া-উজিরপুর) আসনে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দেয় আওয়ামী লীগ। নৌকা প্রতীকে ভোটে জিতে সংসদ-সদস্য হন রাশেদ খান মেনন। সংরক্ষিত মহিলা আসনে একদিকে যেমন সংসদ-সদস্য হতে চাইছেন রুবিনা, তেমনই সংসদ-সদস্য মেননের স্ত্রী লুৎফুন্নেসাও আছেন এ লড়াইয়ে।

যুগান্তরকে রুবিনা বলেন, ছাত্রজীবন থেকে দলের জন্য কাজ করছি। সংরক্ষিত আসনের সংসদ-সদস্য থাকাবস্থায় নিজের সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি দায়িত্ব পালনে। নেত্রী সবই জানেন। বাকি সিদ্ধান্ত তার। পরিচয় গোপন রাখার শর্তে ওয়ার্কার্স পার্টির এক নেতা বলেন, একাদশ সংসদে মন্ত্রিত্ব পাননি রাশেদ খান মেনন। দ্বাদশ সংসদেও একই অবস্থা ছিল। এ পরিস্থিতিতে তার স্ত্রী লুৎফুন্নেসা খানকে এবারও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য করা হতে পারে বলে ধারণা করছি।

জাতীয় পার্টির মনোনয়নে মোট তিনবার সংসদ-সদস্য থাকা দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসরিন জাহান রত্না আমিনও চাইছেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য হতে। বরিশাল-৬ (বাকেরগঞ্জ) আসনে পরপর দুবার সরাসরি সংসদ-সদস্য ছিলেন রত্না। এর আগে একবার হয়েছিলেন পৌর মেয়র ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য। যুগান্তরকে রত্না আমিন বলেন, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য হতে দলের কাছে আবেদন জানিয়েছি।

প্রতি ছয়টি সংসদীয় আসনের বিপরীতে একজন করে সংরক্ষিত মহিলা সংসদ-সদস্য দেওয়ার বিধান রয়েছে। সেই হিসাবে বরিশাল বিভাগের ২১টি আসনে কমপক্ষে তিন এবং সর্বোচ্চ চারজন হতে পারবেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য। অবশ্য প্রধানমন্ত্রী চাইলে বাড়তি দু-একজন দিতে পারেন। যেমনটা দিয়েছিলেন একাদশ জাতীয় সংসদে। তখন সংরক্ষিত আসনে সংসদ-সদস্য থাকা নাদিরা সুলতানা এবার সরাসরি সংসদ-সদস্য হয়েছেন বরগুনা-২ (বামনা-বেতাগী-পাথরঘাটা) আসনে। নাদিরা আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ-সদস্য মরহুম গোলাম সবুর টুলুর স্ত্রী। এ জেলায় সংরক্ষিত মহিলা সংসদ-সদস্য হতে লবিং-তদবির করছেন বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেত্রী। তাদের মধ্যে রয়েছেন সদ্য সাবেক সংসদ-সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর স্ত্রী বরগুনা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাধবী দেবনাথ। পাঁচবারের সংসদ-সদস্য শম্ভু এবার হেরেছেন আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র গোলাম সরোয়ার টুকুর কাছে। এখানে আরও যারা মহিলা সংসদ-সদস্য হতে চান তারা হলেন সাবেক সংসদ-সদস্য মরহুম নিজামউদ্দিন তালুকদারের স্ত্রী আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জাকিয়া এলিট, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাবেক সংসদ-সদস্য নাসিমা ফেরদৌসি, মহিলা শ্রমিক লীগ নেত্রী মেহেরুন নেছা সুমি ও হোসনে আরা রানী।

বরিশালে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য পদে প্রার্থী হিসাবে নাম শোনা যাচ্ছে নবনির্বাচিত সিটি মেয়র খোকন সেরনিয়াবাতের স্ত্রী লুনা আব্দুল্লাহর। যদিও এ ব্যাপারে কোনোরকম মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য বলরাম পোদ্দার বলেন, বরিশালের রাজনীতিতে নতুন হলেও সিটি এবং জাতীয় নির্বাচনে মাঠে কাজ করে নিজের অবস্থান সুসংহত করেছেন লুনা আব্দুল্লাহ। তাছাড়া নারীদের মধ্যে তার বেশ ভালো একটা গ্রহণযোগ্যতাও রয়েছে। অতএব তিনি সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য হতে চাইলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

দলীয় মনোনয়ন পেয়েও দ্বৈত নাগরিকত্বের কারণে শেষ পর্যন্ত নির্বাচন থেকে ছিটকে পড়েন আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মি আহম্মেদ। প্রখ্যাত আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম মহিউদ্দিন আহম্মেদের মেয়ে শাম্মিকে বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনে মনোনয়ন দিয়েছিল দল। সরাসরি সংসদ-সদস্য হতে না পারলেও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য হতে পারেন শাম্মি, তেমনটাই শোনা যাচ্ছে। যদিও এ ব্যাপারে তার কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে তার অনুসারী দলের আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপকমিটির সদস্য সৈয়দ মুনির বলেন, তিনি (শাম্মি) এলাকার জন্য কাজ করতে চান। সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য হলে সেই সুযোগ সৃষ্টি হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনের সংসদ-সদস্য ছিলেন পটুয়াখালী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কানিজ সুলতানা হেলেন। তিনিসহ এ জেলার তিনজন এবার চাইছেন সংরক্ষিত আসনে সংসদ-সদস্য হতে। অন্যরা হলেন সাবেক সংসদ-সদস্য মরহুম আ খ ম জাহাঙ্গীরের স্ত্রী সেলিনা হোসাইন এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী ঢাকা ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক তানজিদা খালেক তুলি।

ভোলা জেলায় যাদের নাম সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য প্রার্থী হিসাবে শোনা যাচ্ছে তারা হলেন জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ শাফিয়া খাতুন এবং জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান খাদিজা আক্তার স্বপ্না। একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ-সদস্য ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচি শেখ অ্যানী রহমান। পিরোজপুরের কোঠায় সংসদ-সদস্য হওয়া এই আওয়ামী লীগ নেত্রী মারা যান ২০২২ সালের ২১ অক্টোবর। এবার এ জেলায় সংরক্ষিত মহিলা সংসদ-সদস্য হওয়ার লড়াইয়ে নেমেছেন পিরোজপুর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি লায়লা পারভিন। তার স্বামী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি একেএমএ আউয়াল পিরোজপুর-১ (সদর-নাজিরপুর-ইন্দুরকানী) আসনে পরপর দুইবার ছিলেন সংসদ-সদস্য। ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোটযুদ্ধে নামা আউয়াল হেরে যান নৌকার প্রার্থী সাবেক মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের কাছে।

ট্যাগস :

Add

আপলোডকারীর তথ্য

Barisal Sangbad

বরিশাল সংবাদের বার্তা কক্ষে আপনাকে স্বাগতম।