০৩:৪১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পরনের পোশাক ছাড়া কিছুই রক্ষা পায়নি আগুনের লেলিহান শিখা থেকে

আগুনের লেলিহান শিখার কাছে মানুষ বড় অসহায়। চোখের সামনে সব শেষ হয়ে যায়। চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া যেন কিছুই করার নেই। দিনশেষে রাতের অন্ধকারে সবাই ঘুমিয়ে পড়বে। সমবেদনা জানানোর মানুষগুলো ভুলে যাবে এই অভাগা দুই সহোদরকে। অনিশ্চয়তার মধ্যেই খোকন ও রিপনের নতুন সূর্য উঠবে।

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পৌর ৫ নম্বর ওয়ার্ড মুসলিম পাড়ায় একটি বসতবাড়ি গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। খোকন ও রিপন দুই ভাই এবং পরিবারের পরনের পোশাক ছাড়া কিছুই রক্ষা পায়নি আগুনের লেলিহান শিখা থেকে।

জানা গেছে, শনিবার (২৯ জুন) তাদের ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ওই ঘরে দুই ভাই খোকন ও রিপনের পরিবারসহ নয়জন বসবাস করতেন। দু’জনই ঝালমুড়ির ব্যবসা করেন। প্রতিদিনের মতো ছোট ভাই রিপনের বউ রান্নার জন্য লাকড়ির চুলা জ্বালায়। পাশেই ছিল গ্যাসের চুলা। গ্যাসের চুলার পাইপ লাইনে ত্রুটি থাকার কারণে আগুন ধরে যায় এবং খুব দ্রুত সমস্ত ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

বড় ভাই খোকন বলেন, আমি সকালে ব্যবসায়িক কাজে বাসা থেকে বাজারে যাই। খবর পেয়ে বাসায় এসে দেখি আগুনে সব পুড়ে যাচ্ছে। ৯৯৯ -এর মাধ্যমে ফায়ার সার্ভিসকে কল দেই। আমার বাসার রাস্তাটি ছোট হওয়ার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঢুকতে পারেনি। পরবর্তীতে তারা অন্যভাবে চেষ্টা করে আগুন নেভায় ততক্ষণে আমার সব শেষ। আমার ও সন্তানদের পরিধেয় পোষাক ছাড়া কিছুই নেই। আমরা প্রায় ১৫ লাখ টাকার মালামালসহ সীমাহীন ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছি।

এ ঘটনায় বোরহানউদ্দিন পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম দুই বস্তা চাল দিয়েছেন এবং প্রয়োজনীয় সহোযোগিতার আশ্বাস দেন।

বোরহানউদ্দিন ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো: আবুল কালাম বলেন, গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।

জামায়াতে ইসলামী বোরহানউদ্দিন উপজেলা আমির ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িটি পরিদর্শন করেন ও সমবেদনা জানান।

ট্যাগস :

Add

আপলোডকারীর তথ্য

Barisal Sangbad

বরিশাল সংবাদের বার্তা কক্ষে আপনাকে স্বাগতম।